আজ : শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রেলওয়ে স্টেশনের ছিন্নমূল মানুষের মাঝে রাতের আধাঁরে ঈদ উপহার দিলেন কালুখালী থানার ওসি


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৯:৩৭ অপরাহ্ণ ,২২ মে, ২০২০ | আপডেট: ১:৫৯ পূর্বাহ্ণ ,২৩ মে, ২০২০
রেলওয়ে স্টেশনের ছিন্নমূল মানুষের মাঝে রাতের আধাঁরে ঈদ উপহার দিলেন কালুখালী থানার ওসি

এস.এম হিমেল।। জনপদে ভেসে বেড়ানো কালুখালী রেলওয়ে স্টেশনে শুয়ে থাকা মানবেতর জীবনযাপনকারী বাস্তহারা ছিন্নমূল মানুষের মাঝে রাতের আধাঁরে ঈদ উপহার হিসাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন কালুখালী থানার ওসি।

কালুখালি জনপদে ভেসে বেড়ানো ছিন্নমুল ও বাস্তহারা মানুষের আশ্রয়স্থল হচ্ছে কালুখালী রেলওয়ে ষ্টেশন। ঈদ উপলক্ষ্যে স্টেশনে থাকা ২৫/৩০ জন ছিন্নমূল হত দরিদ্র মানুষের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

একজন দরদী মানুষ রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পুলিশ পরিদর্শক কামরুল হাসান ২২ মে-২০২০ শুক্রবার রাত সারে ৯.টার দিকে কাউকে না জানিয়ে চুপিসারে সাথে নিয়ে এলেন কালুখালী রেলওয়ে স্টেশনে থাকা ভাসমানদের জন্য ঈদ উপহার হিসেবে ছোট ছোট বস্তা। যার মধ্যে ছিল চাউল, ডাউল, তেল, চিনি, সেমাইয়ের কয়েক ডজন প্যাকেট। স্টেশনে শুয়ে থাকা প্রত্যেক ছিন্নমূল হতদরিদ্রকে নিজ হাতে তুলে  দিলেন ঈদ সাগ্রীর প্যাকেট।

এ সময় তাদেরকে জিঙ্গাসা করে জেনে নেয় কিভাবে জীবনযাপন করছে? তাদের নির্বাক কষ্ট আর করোনা দূর্যোগকালীন হাহাকারকে ভাগ করে নিলেন ওসি। তাদের কষ্টের ব্যকুলতায় ভেজা চোঁখ নিয়ে ধির পদে প্রস্থান করলেন কালুখালী থানার ওসি মোঃ কামরুল হাসান।

তিনি, আজ দুইটি মাস ব্যাপি কালুখালির বিভিন্ন জনপদে প্রায়শাই এ রকম ভুমিকা পালন করে চলেছেন।।

উপহার পাওয়া মুনুষগুলি কে তাদের অনুভূতি জানতে চাইলে, তারা আবেগ প্রবন হয়ে কান্না জরিত কন্ঠে তাদের আনন্দটুকু ব্যক্তকরেন, এবং এই মহান মানষটির দির্ঘায়ু কামনা করে দুই হাত উঠিয়ে দোয়া করেন তারা।

প্রতিবেদকের কথা:- জয় হোক মানবতার, সার্থক হোক এরকম একজন মানবতার ফেরীওয়ালা প্রকৃত দেশ প্রমিকের।

উল্লেখ্য, ১৫ই সেপ্টেম্বর-১৯ দুপুরে রাজবাড়ী জেলার কালুখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে যোগদান করেছ আনুষ্ঠানিকভাবে থানার দায়িত্বভার গ্রহণ করেন পুলিশ পরিদর্শক মোঃ কামরুল হাসান। ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানা এলাকার বাসিন্দা মোঃ কামরুল হাসান ২০০৩ সালে উপ-পরিদর্শক (এস.আই) পদে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন এবং ২০১৩ সালে পরিদর্শক পদে পদোন্নতি পান। কালুখালী থানায় যোগদানের পূর্বে তিনি কিশোগঞ্জ, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
কালুখালী থানার দায়িত্বভার গ্রহণের পর সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার থাকার পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, বাল্য বিবাহসহ সকল ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছিলেন। তারপর থেকেই তিনি সফলতার সাথে দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন এবং জনসাধারনের বন্ধু হয়ে গেছেন।

Comments

comments