আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিরোজপুরে হিন্দু ধর্ম থেকে স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহন


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৩:০২ অপরাহ্ণ ,৩ এপ্রিল, ২০২০ | আপডেট: ১০:৪৭ অপরাহ্ণ ,৩ এপ্রিল, ২০২০
পিরোজপুরে হিন্দু ধর্ম থেকে স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহন

জাহিদ হাসান-পিরোজপুর উপজেলা সংবাদদাতা।। মুসলমানদের ধর্মীয় রীতি-নীতি, আচার-ব্যবহার, চাল-চলন, ধর্মীয় কালচারে অনুপ্রাণিত হয়ে স্বেচ্ছায় স্ব-পরিবারে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন ৩ সদস্যের এক হিন্দু পরিবার।

ইসলাম ধর্ম গ্রহণকারী হিন্দু পরিবারটি হচ্ছে- পিরোজপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ রানীপুর এলাকার, দিলীপ কুমার মোর্শিদের ছেলে রিপন মোর্শিদ (২৩) তার স্ত্রী রুম্পা মোর্শিদ (২০) ও তাদের ৮ মাস বয়সের ছেলে রুদ্র কুমার মোর্শিদ।

ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর- রিপন মোর্শিদ (২৩) এর বর্তমানে তার নাম শেখ আব্দুল্লাহ। তার স্ত্রী রুম্পা মোর্শিদ (২০) এর বর্তমান নাম মোছাঃ আমেনা আক্তার এবং ছেলে রুদ্র কুমার মোর্শিদ এর বর্তমান নাম রাহুল ইসলাম।

এ বিষয়ে, এলাকাবাসীরসূত্রে জানা যায় যে, ৩ এপ্রিল-২০২০ শুক্রবার জুমার নামাজের পূর্ব ক্ষণে স্ব-ইচ্ছায় হিন্দু থেকে স্ব-পরিবারে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করেন। ৬-নং শারিকতলা ডুমুরতলা ইউনিয়নের দক্ষিণ রানীপুর এলাকার পুল সংলগ্ন জামে মসজিদ থেকে জুমার নামাজের পূর্ব ক্ষণে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং নামাজ শেষে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিয়েছেন সদ্য মুসলিম হওয়া মোঃ আব্দুল্লাহ শেখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- গাজীপুর পীর সাহেব হুজুরের নাতি, ৬ নং শারিকতলা ডুমুরতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিরাজুর রহমান রাজু মোল্লা, ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম লাবু, এবং পিরোজপুর সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক জাহিদ হাসান সহ আরো অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।

মোঃ আব্দুল্লাহ তার ছেলে মোঃ রাহুল ইসলামকে গাজীপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় হাফিজি পড়ানোর কথা বলেন। এ সময় গাজীপুর পীর সাহেব হুজুরের নাতি বলেন আপনার সন্তান মানেই আমার সন্তান ওকে আমি আমার নিজের সন্তানের মত মানুষ করব এবং আব্দুল্লাহর ছেলে রাহুলের সকল প্রকারের খরচ বহন করার আশ্বাস দিয়েছেন চেয়ারম্যান রাজু মোল্লা। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পরে আব্দুল্লাহ এবং আমেনাকে ধর্ম মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করা হয়।

চেয়ারম্যান রাজু মোল্লা বলেন- আব্দুল্লাহ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করায় আমি ওকে ৩ শতাংশ জায়গা দান করিলাম এবং সেই জায়গায় বাসস্থানের জন্য একটি ঘর তুলে দেয়া হবে। আব্দুল্লাহ কে কর্মসংস্থানের জন্য একটি মুদির দোকান পর্যাপ্ত পণ্য সামগ্রী সহ তুলে দেয়া হবে যাতে কোনরকম অসুবিধা না হয়, যতদিন পর্যন্ত বাসস্থান এবং কর্মসংস্থানের কোন ব্যবস্থা না হয় ততদিন পর্যন্ত আবদুল্লাহ আমার বাড়িতে থাকবেন এবং আমার বাড়িতে খাবেন।

এ বিষয়ে, আব্দুল্লাহকে জিজ্ঞেস করলে আবদুল্লাহ বলেন আমার আল্লাহর প্রতি ভালোবাসা এবং আল্লাহর প্রতি ঈমান আসার কারণে আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি, আমার জন্য সকলে দোয়া করবেন আমি যেন ইসলাম ধর্মের সমস্ত বিধি বিধান মোতাবেক চলতে পারে এবং আল্লাহর ইবাদত সঠিকভাবে পালন করিতে পারি

Comments

comments