আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

একজন সৎ,সাহসী ও দায়িত্ববান এসিল্যান্ড আব্দুল্লাহ আল মামুন


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ ,২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৪৪ অপরাহ্ণ ,২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
একজন সৎ,সাহসী ও দায়িত্ববান এসিল্যান্ড আব্দুল্লাহ আল মামুন

মোঃ সোহাগ মিয়া-গোয়ালন্দ সংবাদদাতা।। একজন সৎ, সাহসী, আপসহীন ও উদ্যমী সরকারি কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভুমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন যিনি, গোয়ালন্দ উপজেলার ভূমিদস্যুদের জন্য এখন আতংক।
৭ই নবেম্বর ২০১৮সালে সহকারী কমিশনার (ভুমি) হিসেবে গোয়ালন্দে যোগদান করেন তিনি। যিনি মৃত্যুকেও ভয় করেন না। যাকে দিয়ে কোন অন্যায় করানো সম্ভব হয়ে উঠেনা।গোয়ালন্দে এসেই তিনি নিজ অফিসের অধিনন্ত কর্মকর্তাদের সহযোগীতা কামনা করেন। কিন্ত অনেক কর্মকর্তা আগের পেশায় থাকতে চেয়েও ব্যর্থ হয়ে নিজেকে পরিবর্তন করে নিয়েছেন।সেবাগ্রহীরা আসছেন, কাজ সেরে যার যার মত ফিরে যাচ্ছেন কোন হয়রানী বা ভোগান্তি নাই। কাউকে হয়রানি করলে নিজের স্টাফদেরও রেহাই দিচ্ছেন না তিনি।

তিনি যোগদানের পর অফিসের ভিতর ও বাহিরের নানা রকম দৃশ্যমান পরিবর্তনের মাধ্যমে উক্ত অফিসকে একটি সহজ সেবা বান্ধব অফিসে পরিণত করছেন।এছাড়াও প্রত্যেক কর্মকর্তার সামনে তাদের পদবিসহ নাম নির্দেশক ব্যবহার করা হয়েছে যাতে কোন সেবাগ্রহীতারা কোন দালালের খপ্পরে না পড়ে, স্বল্প সময়ে নামজারি মিসকেস মীমাংসাসহ বহুবিদ কাজকে তিনি সহজীকরন করে বাংলাদেশের মডেল অফিস হিসেবে পরিণত করেছেন।গোয়ালন্দ উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান এটি নিঃসন্দেহে একটি জনবান্ধব অফিস।

এ প্রসঙ্গে সহকারী কমিশনার (ভুমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন,বলেন, আমি প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছি। যথা সাধ্য চেষ্টা করেছি সরকারের অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করার। মানুষ তার কর্মের মধ্যে দিয়ে চিরজীবন বেঁচে থাকে আমিও আমার কর্ম দিয়ে এ উপজেলার সকলের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই। পাশাপাশি ভুমি অফিসের সেবা মানুষের দৌড় গোড়ায় নির্বিঘেগ্নে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করেছি। সকলে যাতে ভুমি অফিসের সেবা শতভাগ পায় তার প্রচেষ্টা করেছি। এসব কর্ম বাস্তবায়ন করতে আপনাদের আন্তরিক সহযোগীতায় ছিল আমার প্রেরণা।

Comments

comments