আজ : শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শান্তিপূর্ন ভোটে দৌলতদিয়ায় চেয়ারম্যান হলেন আব্দুর রহমান ও দেবগ্রামে হাফিজুল


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ ,১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট: ১১:৪৬ অপরাহ্ণ ,১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
শান্তিপূর্ন ভোটে দৌলতদিয়ায় চেয়ারম্যান হলেন আব্দুর রহমান ও দেবগ্রামে হাফিজুল

উজ্জ্বল চক্রবর্ত্তী।। গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আব্দুর রহমান মন্ডল (আনারস ও দেবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হাফিজুল ইসলাম (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

১৬ই সেপ্টেম্বর-১৯ সোমবার ভোট গ্রহন শেষে রাত ১০.টার দিকে বেসরকারী ফলাফল ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন।

          দৌলতদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মন্ডল ও দেবগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ীঃ-দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডে উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রহমান মন্ডল আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯ হাজার ৯৪৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯ হাজার ৫৫৭ ভোট। এই ইউনিয়নে মোট ভোটার ছিলেন ২৫ হাজার ২৩৮ জন। এর মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ১৯ হাজার ৫০৩ জন। নষ্ট হয়েছে ৩৮৮ ভোট।

অপরদিকে, দেবগ্রাম ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ১৮৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বর্তমান চেয়ারম্যান আতর আলী সরদার আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ হাজার ৪২৬ ভোট এবং অপর প্রার্থী আঃ মান্নান মোল্লা ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৮০৪ ভোট। এই ইউনিয়নে মোট ভোটার ছিলেন ১১ হাজার ১০০জন। এর মধ্যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন ৮ হাজার ৪১৯জন।বাতিল হয়েছে ১৩৮ ভোট।

         অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দির্ঘ ৮ বছর পর দেশের আলোচিত-সমালোচিত রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়ন ও গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পাড়ার মত। সরেজমিন বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ সারি। তবে, নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য। ভোট গ্রহন চলে সকাল ৯.টা থেকে একটানা বিকেল ৫টা পর্যন্ত। রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কঠোর নির্দেশনায়আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ছিল বেশ তৎপর।

          রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম ও পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে এসে সংবাদিকদের জানান-  জনগনের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়ার সব ধরনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নজিরবিহীন নিরাপত্তা দিয়ে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহনের আয়োজন করায় প্রতিটি কেন্দ্রে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ভোটারের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

আরো জানান- আগেই বলেছে, নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য করে তুলতে ও শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় প্রয়োজনের চেয়েও অনেক বেশী প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে।

অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন উপহার দেয়ায় জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যাবাদ জানিয়েছেন সাধারন মানুষ।

Comments

comments