আজ : বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভোট গ্রহন উপলক্ষ্যে রাজবাড়ীতে প্রশাসনের প্রস্তুতি


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৩:২১ অপরাহ্ণ ,২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ | আপডেট: ৩:২৫ অপরাহ্ণ ,২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
ভোট গ্রহন উপলক্ষ্যে রাজবাড়ীতে প্রশাসনের প্রস্তুতি

নিজস্ব প্রতিনিধি।। সারা দেশে ৩০শে ডিসেম্বর-১৮ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন।এই ভোট গ্রহন উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলায় প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন।জেলায় এ জেলায় রয়েছে ৫টি উপজেলা, আসন সংখ্যা ২টি। রাজবাড়ী সদর উপজেলা ও গোয়ালন্দ উপজেলা মিলে রাজবাড়ী-১ আসন এবং পাংশা, কালুখালী ও বালিয়াকান্দি উপজেলা মিলে রাজবাড়ী-২ আসন।

এরই মধ্যে দুটি আসনের ৫টি উপজেলায় পৌঁচেছে ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স।
শুক্রবার সকালে রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক ও রির্টানিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স বুঝে নেন স্ব স্ব উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তারা।
এ সময় রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক মোঃ শওকত আলী, রাজবাড়ী-১ আসনের রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা মোঃ সাঈদুজ্জামান খান, গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা রুবায়েত হায়ত শিপলু, রাজবাড়ী-২ আসনের পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম, বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা মোঃ মাসুম রেজা ও কালুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা কামরুন নাহারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক ও জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা মোঃ শওকত আলী জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে রাজবাড়ী জেলায় ৯ শতাধিক পুলিশ সদস্য, ১৩ প্লাটুন সেনা সদস্য, ৬ প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।তার সাথে থাকবে পুলিশ প্রশাসনের ৩৮টি মোবাইল টিম ও উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসার।

এই নির্বাচনে রাজবাড়ী জেলায় মোট ৮ লক্ষ ৯ হাজার ৯৯ জন ভোটার ভোট প্রয়গ করবে।মোট ভোট কেন্দ্রে রয়েছে ৩১২ টি।এর মধ্যে ১৮৭ টি কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ন (ঝুকিপূর্ন) ও ১২৫ টি কেন্দ্রকে সাধারন কেন্দ্র হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে।এছাড়াও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কেউ যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটাতে পারে এবং সবাই যাতে নিরাপদে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধীকার প্রয়োগ করতে পারে সে জন্য জেলা পুলিশ, গোয়েন্দা পুলিশ, র‌্যাব ও সাদা পোশাকে পুলিশ কাজ করছে।

Comments

comments