আজ : বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৮০ হাজার ইয়াবাসহ রাজবাড়ীর ২ ব্যাক্তি কক্সবাজারে আটক


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ ,৬ মে, ২০২০ | আপডেট: ২:৪০ অপরাহ্ণ ,৬ মে, ২০২০
৮০ হাজার ইয়াবাসহ রাজবাড়ীর ২ ব্যাক্তি কক্সবাজারে আটক

স্টাফ রিপোর্টার।। প্রাইভেটকারে করে ৮০ হাজার পিস ইয়াবা নিয়ে রাজবাড়ী আসার পথে কক্সবাজার কর্ণফুলী থানাধীন মইজ্জারটেক চেক পোষ্টে রাজবাড়ীর মোঃ আশরাফুজ্জামান (৩২) এবং রাসেল রানা (৩৫) নামের দুইজন মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে কর্ণফুলী থানা পুলিশ।

৫ মে-২০২০ মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯.টার দিকে মইজ্জারটেক চেকপোস্টে এসআই জাহিদ এমরানের ডিউটিকালে এ ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনা ঘটে। আটক দু’জনের মধ্যে সাবেক সেনা সদস্য আশরাফুজ্জামান ও তার প্রাইভেটকারটি চালাচ্ছিলেন রাসেল।

গ্রেপ্তারকৃতদের পরিচয়- মোঃ আশরাফুজ্জামান হচ্ছে- সাবেক সেনা সদস্য, সে  রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়নের ভট্টাচার্যপাড়ার আব্দুল কাদেরের ছেলে এবং রাসেল একই উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের খামারডাঙ্গি গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

এ বিষয়ে, নগর পুলিশ অতিরিক্ত  উপ-কমিশনার (বন্দর)  আরেফিন জুয়েল বলেন- প্রতিদিনের ন্যায় মইজ্জারটেক এলাকায় চেক পোষ্ট চলছিল। হঠাৎ চট্টগ্রামগামী একটি প্রাইভেটকার চেক করার পর বুঝা যায় কারটি কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামে প্রবেশ করছে। প্রাইভেট কারটিকে সন্দেহ হলে চেক করা হয়। তখন গাড়িতে বহন করা বিপুল সংখ্যক ইয়াবা বেরিয়ে আসে। পরে ইয়াবা ও সাদা রঙের ফিল্টার প্রাইভেট কারটি জব্দ করে ৪০ প্যাকেট ভর্তি ৮০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট (যার আনুমানিক মূল্য (২ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা) উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, এ সময় আশারাফুজ্জামানের সাথে একটি আইডি কার্ড পাওয়া যায়। যেখানে তিনি সেনা সদস্য প্রমাণ হয়। জানা যায়, আশরাফুজ্জামান ২০০৬ সালে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে তিনি সেনাবাহিনী থেকে চাকুরিচ্যুত হন। তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের সদস্য ছিলেন বলে জানা যায়। তবে কি কারণে চাকুরিচ্যুত হন তা এখনো জানা যায়নি।

গ্রেপ্তারকৃতদের নাম উল্লেখ্য করে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হচ্ছে বলে পুলিশ জানায়।

আশরাফুজ্জামান সেনাবাহিনীতে চাকুরি করতো, চাকুরি হতে কয়েক বছর আগে বরখাস্ত হয়। তারপর হতে সে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। বর্তমানে পাংশার বাবুপাড়া ও কালুখালীর মোহনপুর বাজার এলাকা সমস্ত প্রকার মাদকের বিশাল বাজার। এই দুই জায়গায় ওপেনে মাদক বেচাকেনা হয়।

গোপনে এলাকাবাসীসূত্রে জানাযায়- এ ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এখানে রয়েছে শক্তিশালী সিন্ডিকেট, যাহা বর্তমান ক্ষমতাসীনদের নিয়ন্ত্রিত, এদর কথা অনেকেই জানেন কিন্তু ভাসুরের নাম ভয়ে কেউ বলেনা। যার প্রমান মেলে- গত সপ্তাহে পাংশার শিহড় গ্রাম এলাকায় ৪৪ কেজি গাঁজা ও ১৬৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক করে ফরিদপুর র‌্যাব। সেখানেও ধৃত আসামিরা ক্ষমতাসিনদের নাম বলেছে বলে জানাযায়। যারা রাজবাড়ী-২ এর সবচেয়ে প্রভাবশালী নেতার একান্ত সহোচর/সিন্ডিকেট সদস্য।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক (ভারপ্রাপ্ত) সহকারি পুলিশ সুপার দেবাশীষ কর্মকারের নেতৃত্বে ৩০শে এপ্রিল-২০২০ বৃহস্পতিবার রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার শিহড় গ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে একটি মিনি পিকআপ ভর্তি ৪৪ কেজি গাঁজা ও ১৬৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে উক্ত র‌্যাব ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল।

আটকরা হলো- রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের মোঃ আমানত বিশ্বাসের ছেলে মোঃ আব্দুল্লাহ বিশ্বাস (২২) অপরজন, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার দামুড়হুদা নতুন হাউলি গ্রামের মোঃ ইকরামুল মল্লিকের ছেলে মোঃ হানিফ মল্লিক (২০)।

Comments

comments