আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ী থানার চৌকস ওসির হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেনা বিকাশ প্রতারক চক্র


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ ,৫ জানুয়ারি, ২০২০ | আপডেট: ১০:৩২ অপরাহ্ণ ,৬ জানুয়ারি, ২০২০
রাজবাড়ী থানার চৌকস ওসির হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেনা বিকাশ প্রতারক চক্র

উজ্জ্বল চক্রবর্ত্তী।। বর্তমানের তথ্য প্রযুক্তির যুগে রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন মজুমদারের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেনা বিকাশ প্রতারক চক্র। অভিযোগ পেলেই তথ্য প্রযুক্তি ব্যাবহার করে উদ্ধার করে নিয়ে আসছে বিকাশের মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া টাকা।

বিস্তারিত, মহিলার নাম রোজিনা। তার ছেলে হাসিবুল (৭) কিডনি অসুস্থ্যতায় হাসপাতালে ভর্তি। বাদিনী অনলাইনে সমাজের বিত্তবানদের নিকট আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদন করেন।

গত ৩/১২/১৯ খ্রিঃ তারিখে বিকাশ প্রতারক চক্র আমিন গ্রুপের নাম করে সাহায্য দেবার লোভ দেখিয়ে বাদিনীর কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে রোজিনা বাদি হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ করে।

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন মজুমদারের নির্দেশনায় পুলিশ অদ্য টাকা উদ্ধারে তৎপর হয় ও কার্যক্রম চালায়। তথ্য প্রযুক্তি ব্যাবহারে মধ্যমে জানতে পারে- বিকাশ প্রতারক চক্র টাকা হাতিয়ে নিয়ে পাবনার বেড়া থানা, আমিনপুর থানা ও ঢাকার সবুজবাগ থানা এলাকায় টাকা ক্যাশ আউট করে। উক্ত সূত্র ধরে হাতিয়ে নেওয়া টাকা উদ্ধার করে বাদিনী রোজিনার হাতে বুঝিয়ে দেন রাজবাড়ী থানা পুলিশ।

দ্বিতীয় ঘটনা, গত ২/১/২০২০ তারিখে বিকাশ প্রতারকরা রেশমা আক্তারকে ভুল বুঝিয়ে তার মোবাইল হ্যাক করে ৮,৫,৩৪/- টাকা নিয়ে যায়। এ ঘটনায়, রেশমা আক্তার রাজবাড়ী থানায় মৌখিকভাবে অভিযোগ করে।

এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজবাড়ী থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে বাদিনীর টাকা উদ্ধারপূর্বক তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে, রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন মজুমদার সকলকে অনুরোধ জানিয়ে বলেন- আপনাদের নিকট অনুরোধ আপনাদের বিকাশের পিন নাম্বার কাউকে দিবেন না বা শেয়ার করবেন না। তাহলে আপনার বিকাশ একাউন্ট হ্যাক হবে না। তারপরেও যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট হ্যাক করে টাকা নিয়ে যায়, তাহলে অতিদ্রুত রাজবাড়ী সদর থানায় ০১৭১৩৩৭৩৫৯৮ যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হল কিংবা আমার মোবাইল নাম্বারে ০১৭৬৯-৬৯২৭০০, ০১৭৪০-৯৪০৬৩৪ নাম্বারে কল করুন। চেষ্টা করব আপনার টাকা উদ্ধারের সাথে সাথে আসামী গ্রেফতারের।

Comments

comments