আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাচ্চু রাজাকার ছিলেন রাজবাড়ী আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৬:৫৫ অপরাহ্ণ ,১ ডিসেম্বর, ২০১৯ | আপডেট: ৯:০০ অপরাহ্ণ ,২ ডিসেম্বর, ২০১৯
বাচ্চু রাজাকার ছিলেন রাজবাড়ী আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে

রাজবাড়ী প্রতিনিধি।। মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি রমজান আলী খানের বাড়িতে টানা ২১ দিন আত্মগোপনে ছিলেন- মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী আবুল কালাম আজাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকার।

রমজান আলী খানের বাড়ি- রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের রায়নগর কাজিবাঁদা গ্রামে।

৩০ নভেম্বর-১৯ শনিবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সভায় অবাক করা এসব তথ্য উঠে এসেছে।

এ সভায়, সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মোঃ জিল্লল হাকিম।

সভা শেষে সন্ধ্যায়, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি- সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী সাংবাদিকদের বলেন- বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এস এম নওয়াব আলী। জেলা আওয়ামী লীগের সভায় নওয়াব আলীকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কারের কথা তোলা হয়।

তখন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব সাংবাদিকদের বলেন- দলীয় সভানেত্রী চিঠি দিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীদের মাফ করে দিয়েছেন। তা ছাড়া এর চেয়ে গুরুতর অভিযোগও তো আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে রয়েছে। সে ব্যাপারে তো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না। “আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী আবুল কালাম আজাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকার যুদ্ধপরবর্তী সময়ে টানা ২১ দিন আত্মগোপনে ছিলেন- রাজবাড়ী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি রমজান আলী খানের বাড়িতে।”

এ বিষয়ে, অভিযোগ স্বীকার করে রমজান আলী খান বলেন- তিনি সে সময়ে রাজধানী ঢাকায় পড়াশোনা করতেন। ছুটিতে বাড়িতে এসে দেখেন তাঁদের বাড়িতে বাচ্চু রাজাকার অবস্থান করছেন। ২১ দিনের দিন ছিল। এরপর তিনি তাকে তাঁদের বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন। তিনি আরো বলেন, আগামী ৩ ডিসেম্বর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল। তিনি কাউন্সিলে এবারও সভাপতি প্রার্থী। মূলত এ কারণে তাঁর বিরুদ্ধে এখন এসব অমূলক অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

Comments

comments