আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিকনা, বললেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ২:৩৩ অপরাহ্ণ ,২৩ জুলাই, ২০১৯ | আপডেট: ৩:৪১ অপরাহ্ণ ,২৪ জুলাই, ২০১৯
প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিকনা, বললেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার

ডেস্ক নিউজ।। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে সম্প্রতি প্রিয়া সাহা নামের এক বাংলাদেশি নারী সংখ্যালঘু নির্যাতন বিষয়ে যে তথ্য দিয়েছেন তা সঠিকনা, বলে মনে করেন ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার।

২০শে জুলালাই-১৯ শুক্রবার বিকেলে রাজধানীতে মেরুল বাড্ডায় বৌদ্ধ মন্দিরে এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত মিলার এসব কথা বলেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায় একে অপরকে শ্রদ্ধা করে।’

আমেরিকার রাষ্ট্রদূত মিলার বলেন- ‘আমার প্রথম ৮ মাসের দায়িত্ব পালনকালে আমি বাংলাদেশের ৮টি বিভাগেই ঘুরেছি। মসজিদ, মন্দির ও চার্চে গিয়ে ইমাম পুরোহিতদের সঙ্গে কথা বলেছি। এখন আমি এসেছি একটি বৌদ্ধ মন্দিরে, আমার কাছে যেমনটা মনে হয়েছে, এখানকার ভিন্ন ভিন্ন বিশ্বাসের লোকজন একে অপরকে শ্রদ্ধা করে। তাই আমি মনে করি, তার অভিযোগ সঠিক নয়, বরং ধর্মীয় সম্প্রীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি উল্লেখযোগ্য নাম। যদিও কোন দেশই সংখ্যালঘুদের অধিকার দিতে সফলতা পায়নি।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ অঞ্চলের প্রধান ইস্যুগুলো কী তা যুক্তরাষ্ট্র ভালোভাবেই জানে।’

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ সরকার ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে নালিশ করেছেন এক হিন্দু নারী। বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন করা হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলে তিনি দাবি করেন, ৩৭ মিলিয়ন অর্থাৎ ৩ কোটি ৭০ লক্ষ হিন্দু বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান গুম হয়ে গেছে। সংখ্যালঘুদের জায়গা দখল করা হচ্ছে। বাড়িঘর পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। একইসাথে তিনি ট্রাম্পের সহায়তা চান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ বিষয়ে প্রিয়া সাহা নামের এক নারীর এমন মিথ্যে নালিশে সোশ্যাল মিডিয়া সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

কে এই প্রিয়া সাহা ?

জানা গেছে, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ -খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সাংগঠনিক সম্পাদক এ প্রিয়া সাহা। এছাড়াও তিনি বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) ‘শারি’-এর নির্বাহী পরিচালক হিসেবেও দায়িত্বরত ।

তার গ্রামের বাড়ী পিরোজপুর জেলার চরবানিরীর মাটিভাঙ্গা নাজিরপুর। তার স্বামী মলয় সাহা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক। তাদের দুই মেয়ে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন প্রিয়া। রোকেয়া হলে থাকতেন তিনি।সে সময় তিনি ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি ‘মহিলা ঐক্য পরিষদ’এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য গতবছর তাকে পদ থেকে বহিষ্কার করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

 কয়েক বছর ধরেই যুক্তরাষ্ট্রে প্রিয়া সাহার দুই মেয়ে বসবাস করছেন। কিছুদিন পূর্বে সেখানে যান প্রিয়া সাহা।

Comments

comments