আজ : বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে ছাত্রকে পিটিয়ে জখম করায় মাদ্রাসার শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ ,২৩ জুলাই, ২০১৯ | আপডেট: ২:৩৩ অপরাহ্ণ ,২৪ জুলাই, ২০১৯
রাজবাড়ীতে ছাত্রকে পিটিয়ে জখম করায় মাদ্রাসার শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

রাজবাড়ী প্রতিনিধী।। ক্লাস থেকে পালানোর চেষ্টাকালে ৮ম শ্রেনীর এক ছাত্র মেহেদী হাসান শিমুলকে বৈদ্যুতিক তার দিয়ে পিটিয়ে জখম করায় রাজবাড়ী জেলা শহরের শ্রীপুর লজ্জাতুননেছা কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ দিদারুল্লাহর বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায়, ওই ছাত্রের মা শিউলি বেগম ২২ জুলাই-১৯ সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এবং বিষয়টি মৌখিক ভাবে জেলা শিক্ষা অফিসারকেও জানিয়েছেন। মেহেদী হাসান শিমুল শ্রীপুর বাস টার্মিনাল এলাকার প্রবাসী মোঃ লুৎফর রহমানের ছেলে।

আহত ছাত্র শিমুল জানায়, তাদের ক্লাসেরই রায়হান নামে একটি ছেলে দুপুরে পালানোর জন্য তার ব্যাগ টি দো’তলা থেকে নিচে ফেলে দেয়। এ সময় দেখে ফেলে মাদরাসার অধ্যক্ষ দিদারুল্লাহ হুজুর, সে তখন পেছন থেকে এসে কোন কিছু না বলেই কারেন্টের তার দিয়ে পেটাতে শুরু করে। ওই তারের আঘাতে তার পিঠে, হাতে,কাঁধে লাল ও কালচে দাগ হয়ে রক্ত জমাট বেঁধে সারা শরীর ক্ষত-বিক্ষত হয়।
অভিযোগকারী শিউলি বেগম জানান, তার ছেলে শিমুল শ্রীপর লজ্জাতুননেছা কামিল মাদরাসার ৮ম শ্রেনীতে পড়ে। প্রতিদিনের মত আজও সে মাদ্ররাসায় যায়। কিন্তু দুপুরে একটি ছেলে পালানোর চেষ্টাকালে মাদরাসার অধ্য মোঃ দিদারুল্লাহ তার ছেলেকে ইলেকট্রিক তার দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। এতে তার ছেলের হাতে, পিঠে, কাঁধে লম্বা লম্বা লাল ও কালচে দাগ পড়েছে এবং ব্যাথায় অসুস্থ হয়ে পড়ছে। পড়ে হাসপাতালে নিয়ে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক দ্বারা চিকিৎসা করিয়েছেন। তাই এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চেয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন এবং মৌখিক ভাবে জেলা শিা অফিসারকেউ বিষয়টি জানিয়েছেন।
শ্রীপুর লজ্জাতুননেছা কামিল মাদরাসার অধ্য মোঃ দিদারুল্লাহ জানান, ছাত্রটি পালানোর জন্য চেষ্টা করছিল। এ কারণে তাকে পেটানো হয়েছে, তবে ইলেকট্রিক তার দিয়ে নয়, লাঠি দিয়ে পিটিছেন। মুলত শাসন করতে তাকে পেটানো হয়েছে।
এ বিষয়ে, জেলা শিাক্ষা অফিসার সামছুন্নাহার চৌধুরী জানান, ফোনের মাধ্যমে ওই ছাত্রের মা বিষয়টি তাকে জানিয়েছেন।
রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম জানান, মাদরাসার এক ছাত্রকে পেটানো হয়েছে একটি অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

Comments

comments