আজ : রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালুখালীর বালু মহালে ককটেল বিস্ফোরন ও ফাঁকা গুলি; আতঙ্কে এলাকাবাসী


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ ,২১ এপ্রিল, ২০১৯ | আপডেট: ১১:০৮ অপরাহ্ণ ,২২ এপ্রিল, ২০১৯
কালুখালীর বালু মহালে ককটেল বিস্ফোরন ও ফাঁকা গুলি; আতঙ্কে এলাকাবাসী

উজ্জল চক্রবর্ত্তী-স্টাফ রিপোর্টার।। বালু মহালে আধিপত্য বিস্তার করতে দূর্বৃত্তরা বালু মহালে ককটেল বিস্ফোরন ও ফাঁকা গুলির ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ সময় মৃগি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে আটক করতে না পারলেউ দূর্বৃত্তদের একটি ১০০ সিসি বাজাজ কোম্পানির মোটর সাইকেল জব্দ করেছে।

২০শে এপ্রিল-১৯ শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯.টার দিকে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার  শাওরাইল ইউনিয়নের বড় পাতুরিয়া গড়াই নদীর বালুর ঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

তবে, ইজারাদার মোহাম্মদ আলীর গড়াই নদীর বালু মহালে কর্মরত শ্রমিক ও ইজারাদারের মধ্যে ভীতি ও আতঙ্কের সৃষ্টির লক্ষ্যে একদল দূর্বৃত্ত এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জনসাধারন মনে করছেন।

শ্রমিক ও এলাকাবাসী জানান, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯.টার দিকে স্থানীয় গোলাম নবী, আকমল খুড়া, এসএম লিয়াকত, নজরুল, বাচ্চু, ওসমানের নের্তৃত্বে ৭/৮টি মোটার সাইকেল নিয়ে আগ্নেঅস্ত্র সহ ১৫/১৬ জনের একদল সন্ত্রাসী পাতুরিয়ার গড়াই নদীর বালু মহালকে উদ্দোশ্যে করে ঘাট পরিচালনাকারী ইসরাফিল বিশ্বাসের বাড়ীতে গিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা ককটেলের বিস্ফোরন ও ফাঁকা গুলি করে এবং বালুর ঘাট ছেড়ে দিতে হুমকি দেয়। ঘাট না ছাড়লে প্রানে মেরে ফেলবে বলেউ জানায়। এর আগেউ এ বালুর ঘাটে সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। সে সময় টোল আদায় ঘর ভাংচুর ও শ্রমিকদের মারধরের ঘটনা ঘটে। এ রকম ঘটনায় ইজারাদার, শ্রমিক ও স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

ইজারাদার মোহাম্মদ আলী জানান, সরকারের সকল নিয়ম কামুন মেনে বালু মহালের ইজারা নিয়েছেন। কিন্তু স্থানীয় একটি চক্র শুরু থেকেই সেখান থেকে বালু বিক্রিতে বাঁধা দেওয়া সহ ভয়ভীতি দেখিয়ে চলছে। কিছু দিন আগে টোল ঘর ভাংচুর করে ওই সন্ত্রাসীরা। যে কারণে দুই মাস বালু বিক্রি বন্ধ থাকে। ফলে তার লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ওই ঘটনায় ১৭ ফেব্রুয়ারী কালুখালী থানায় একিট অভিযোগও করেন তিনি। শনিবার রাতে আবার তাদের হত্যার উদ্দোশ্যে সন্ত্রাসীরা বালু মহালের পরিচালরাকারী ইসরাফিলের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভয়ভীতি দেখায়। এ সময় বোমার বিস্ফোরন ও গুলি করে তারা। ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও শান্তিপূর্ণ ভাবে বালু বিক্রি করতে পারেন সে বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

মৃগি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই নাসির উদ্দিন জানান, দূর্বৃত্তরা ককটেলের বিস্ফোরন ও গুলির ঘটনা ঘটিয়েছে। এমন সংবাদ জানার পর তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি মোটর সাইকেল জব্দ করেছেন। তবে কাউকে আটক করতে পারেন নাই। কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পান নাই।

Comments

comments