আজ : রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খোকনকে মারপিটের মামলায় শ্রীপুরের গডফাদার জিপু গ্রেফতার


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৫:৫৮ অপরাহ্ণ ,১৯ এপ্রিল, ২০২৩ | আপডেট: ২:২৬ পূর্বাহ্ণ ,২১ এপ্রিল, ২০২৩
খোকনকে মারপিটের মামলায় শ্রীপুরের গডফাদার জিপু গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার।। আওয়ামীলীগ একটানা তিন ট্রাম ক্ষমতায় থাকার পরেও জামাত-বিএনপি’র সন্তানদের দ্বারা রাজবাড়ী জেলা শহরের শ্রীপুর এলাকায় গড়ে ওঠে কিশোর গ্যাং। আর ওই কিশোর গ্যাংটি এলাকায় মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজী, টেন্ডারবাজী, দখলদারী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ নানা অপকর্ম চালিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার বা প্রতিবাদ করার সাহস করেনা। এই কিশোর গ্যাংয়ের অন্যতম সদস্য সন্ত্রাসী মিথুন, পোড়া পলাশ, পিয়াল, পিয়ারুসহ অনেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হলেও ধরা-ছোয়ার বাহিরে রয়েছে হৃদয় মোল্যা, শুভ, আশিক আলম সবুজ ওরফে সবুজ মোল্যা, ইন্দ্রনারায়নপুর গ্রামের হানিফ শেখের ছেলে মুন্নাফ শেখ, রামকান্তপুর মুন্সিপাড়ার মাইনা ড্রাইভারের ছেলে হাবিব ও রিকসা চালক মানিকের ছেলে রনিসহ আরো অনেকেই।

খোঁজ-খবর নিয়ে জানাযায়, এই কিশোর গ্যাংয়ের সকল সদস্যই বিএনপি-জামাত সমর্থিত পরিবারে সন্তান। লোকে বলে, এদের প্রভাব বিস্তারের না-কি এক অভিভাবকের মদদ রয়েছে।

এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে সমুন্নত রাখতে গত ১০/০৪/২০২৩ তারিখ দুপুরের দিকে সদর উপজেলা পরিষদের সন্মূখে আওয়ামীলীগ সমর্থিত আব্দুল মতিন সিদ্দিকী(৪০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করে এবং একই ঘটনার সূত্রধরে মোঃ রফিকুল ইসলাম খোকন(৪২) নামে অপর এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে আহত করে স্থানীয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। ওই ঘটনায় ১৩/৪/২৩ তারিখে মোঃ আব্দুল মতিন সিদ্দিকী বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি মামলা (নং-২২) দায়ের করে। অপরদিকে, খোকন বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় আরো একটি মামলা (নং-২৮) দায়ের করে।

খোকনের মামলার অজ্ঞাত নামা আসামি হিসেবে ১৮এপ্রিল সোমবার দিবাগত মঙ্গলবার ভোরে অভিযান চালিয়ে শ্রীপুর এলাকার মৃত মতিয়ার মোল্লার ছেলে আশিক আলম জিপুকে গ্রেফতার করেছে রাজবাড়ী থানা পুলিশ। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করে।

এদিকে, জিপু গ্রেফতারের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পরলে শ্রীপুর বাজারের ব্যবসায়ীরাসহ স্থানীয় বাসিন্দারা আনন্দ প্রকাশ করেছে। তারা জিপুকে গ্রেফতার করায় রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার ও রাজবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে। জিপুর সকল অপকর্মের সহযোগিদেরও গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছে।

রাজবাড়ী থানা পুলিশ ও স্থানীয়সুত্রে জানাযায়; শ্রীপুর এলাকায় গড়ে ওঠা কিশোর গ্যাংয়ের মদদদাতা ও গড ফাদার হলো আশিক আলম জিপু। সে দীর্ঘ দিন ধরে ওই অঞ্চলে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ তৈরী করে নিজেকে আড়ালে রেখে মাদকদ্রব্য বিক্রি, চাঁদাবাজী, দখলদারী, টেন্ডারবাজীসহ নানা ধরণের অপকর্মের অভায়ারন্য তৈরী করেছে।

রাজবাড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন বলেন, সন্ত্রাসী যেই হোকে তাদের শেকড় উপরে ফেলা হবে। একই সাথে ওই মামলার আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জিপু গ্রেফতারের খবর ছড়িয়ে পরলে ফেসবুকে বিভিন্ন লোক বিভিন্ন মন্তব্য করেন-

গ্রেফতারকৃত আশিক আলম জিপু হচ্ছে; গ্রেফতার হওয়া কিশোর গ্যাং লিডার ১২/১৩টি মামলার আসামী মিথুন, পিয়ারু ও পোড়া পলাশের নেতৃত্বাধীন কিশোর গ্যাংয়ের অন্যতম সদস্য এবং মতিন ও খোকনের মামলার আসামী- হৃদয় মোল্লা(২৫) এর বাবা। এছাড়াও, খোকনের মালার আসামী ও মাদক ব্যবসায়ী- আশিক আলম সবুজ ওরফে সবুজ মোল্লা(৪২) এর বড় ভাই।  আশিক আলম সবুজ মোল্লা(৪২) একজন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবী হিসাবে পরিচিত।

Comments

comments