আজ : রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জবাবদিহিতার জন্য ইউটিউব ও ফেসবুক কে লিগ্যাল নোটিশ


প্রতিবেদক
জনতার মেইল.ডটকম

প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ ,২২ আগস্ট, ২০২২ | আপডেট: ১:৫৭ পূর্বাহ্ণ ,২৩ আগস্ট, ২০২২
জবাবদিহিতার জন্য ইউটিউব ও ফেসবুক কে লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার।। দেশ, জাতি, বুদ্ধিজীবীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্বদের ইমেজ ক্ষুন্ন করে ইউটিউব ও ফেসবুকে প্রচারিত ভুয়া নিউজ, ছবি, ভিডিও লিংক ব্লক করতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।
সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী নিলুফার আনজুম এবং ঢাকা জজকোর্টের আইনজীবী মো. আশরাফুল ইসলামের পক্ষে আইনজীবী আরাফাত হোসেন খান আজ রোববার (২১শে আগস্ট-২২) এ নোটিশ পাঠান।
ই-মেইল ও রেজিস্ট্রি ডাকযোগে ডাক টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য- প্রযুক্তি সচিব, তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব, নিরাপত্তা সেবা বিভাগের সচিব, বিটিআরসি, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, পুলিশের মহা-পরিদর্শক, ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সির মহা-পরিচালক, ইউটিউব এলএলসি, মেটা প্ল্যাটফর্ম, ইনক (ফেসবুক), মেটা প্ল্যাটফর্মের (ফেসবুক) বাংলাদেশের হেড অব পাবলিক পলিসি শাবনাজ রশিদ দিয়ার কাছে এ নোটিশ পাঠানো হয়।
নোটিশে বলা হয়, গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে অনলাইন স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারী, দর্শক এবং গ্রাহক বেড়েছে। কিন্তু কনটেন্ট নিয়ে ফেসবুক ও ইউটিউব বাংলাদেশে তাদের সুপারভাইজরি মেকানিজম বা নিয়ন্ত্রণ প্রয়োগ করেনি। যেখানে দেশে ও দেশের বাইরে ইউটিউব ও ফেসবুকে ভুয়া নিউজ, ছবি, ভিডিও প্রচার করে দেশ, জাতি, বুদ্ধিজীবীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্বদের ইমেজ ক্ষুন্ন করছে।
এ অবস্থায় নীতিমালার অভাবে কোনো ফ্যাক্টচেক ছাড়া ফেসবুক ও ইউটিউবের মাধ্যমে ভুয়া নিউজ ছড়াচ্ছে। এটি বাংলাদেশের টেলিকমিউনিকেশন আইনের ৬৪, ৯৭ এ, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৮ এবং ২৫, আইসিটি আইনের ৪৬ ধারার এবং সংবিধানের ২৭, ৩১, ৩৯ অনুচ্ছেদের লঙ্ঘন।
নোটিশে ফেসবুকে প্রচারিত কয়েকটি ভুয়া তথ্যের লিংকও উল্লেখ করা হয়েছে। অবিলম্বে এসব লিংক ব্লক এবং সরাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ, ইউটিউব ও ফেসবুকের কার্যক্রম মনিটর, আইন অনুসারে প্রতিনিয়ত প্রতিবেদন দাখিল এবং অনলাইনের সব নিউজ পোস্ট, ভিডিও লিংককের ভেরিফাইয়ের বিষয়ে আইন অনুসারে জবাবদিহিতার মেকানিজম তৈরি করতে বলা হয়েছে।
নোটিশ পাওয়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে এ বিষয়ে পদক্ষেপ না নিলে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। (সূত্র: বাসস)

উল্লেখ্য, গত ০২/০৬২০২১ তারিখ বুধবার সচিবালয়ে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুষ্ঠিত বৈঠকে- ফেসবুক ও ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় এনে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার বিষয়ে গুরুত্বাপোর করা হয়। এদিন কমিটির সভাপতি মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, সামাজিক মাধ্যমে অনেকেই ভালো কাজ করছে। তারা স্বাধীনভাবে কাজ করুক, সংবাদ আদান-প্রদান করুক। তাতে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করবে না সরকার।

তবে, কিছু সংখ্যক ব্যবহারকারী নানা তথ্য-উপাত্ত নিয়ে মিথ্যাচার করছে উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী বলেন, এটা স্বাভাবিক জীবনযাত্রার জন্য, সবার জন্য হুমকিস্বরূপ। এ জন্য তাদের আইনের আওতায় আনতে নিবন্ধন করতে বলা হয়েছে।

ফেসবুক-ইউটিউবে কে কোত্থেকে কী করে, তা পাওয়া যায় না মন্তব্য করে তিনি বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানের অফিস দেশে না থাকায় অনেক কিছুই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। ফলে একজনের দোষে সমালোচিত বা ক্ষতিগ্রস্ত হয় ৫ জন। নিবন্ধন হলে অপরাধীকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা যাবে, অন্যরা ভোগান্তির শিকার হবে না।

Comments

comments